ডায়পারের জন্য শিশুর র‍্যাশের সমস্যা, মুক্তি পেতে কয়েকটি টিপস

264

বর্তমান ব্যস্ততার যুগে অভিভাবকেরা শিশুর দেখভালের জন্য বাজারচলতি ডায়পারের উপরেই বেশি আস্থা রাখেন। ডায়পার ব্যবহার করা যেমন সহজসাধ্য, তেমনি শিশুর পক্ষে তা আরামদায়কও বটে। তাই দিনে দিনে ডায়পারের চাহিদা বাড়ছে। কিন্তু প্রত্যেক জিনিসেরই যেমন কিছু ইতিবাচক দিক থেকে, তেমনি তার বেশ কিছু নেতিবাচক প্রভাবও থাকে। ডায়পারেরও আছে, ন্যাপি র‍্যাশ।

শিশু প্রতিপালন করতে গিয়ে কখনো এই সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়নি এমন অভিভাবক খুঁজে পাওয়া দায়। তবে জানেন কি, বেশ কিছু ঘরোয়া উপায় আছে যার মাধ্যমে আপনি আপনার শিশুকে ন্যাপি র‍্যাশের জ্বালা-যন্ত্রণা থেকে দূরে রাখতে পারেন। এই প্রতিবেদনের সেরকমই কিছু জরুরি টিপস দেওয়া থাকলো। শিশুকে ন্যাপি র‍্যাশের হাত থেকে বাঁচাতে চাইলে যখনই ডায়পার খুলবেন, শিশুর পশ্চাৎদেশ ভালো করে গরম জল দিয়ে পরিষ্কার করে নেবেন।

এর পর পুনরায় ডায়পার পরানোর আগে অবশ্যই শিশুর ত্বকে পেট্রোলিয়াম জেলির একটি পাতলা আস্তরণ প্রয়োগ করুন। তারপর ডায়পার পরান, এতে ন্যাপি র‍্যাশের সমস্যা মিটবে। তবে চেষ্টা করুন, শিশুকে কিছুটা সময় ডায়পার না পরিয়ে রাখার। এতে বাইরের হাওয়া চলাচল করবে, যার ফলে র‍্যাশ কিংবা ফুসকুড়ি নিজে থেকেই কমে আসবে। এই সময়টা শিশুকে সুতির কাপড় পরিয়ে রাখতে পারেন। যা তাকে আরাম দেবে।

তবে নিতান্তই যদি শিশুর ত্বকে ফুসকুড়ির সমস্যা দেখা দেয়, সেক্ষেত্রে উপায় হলো ঘরোয়া টক দই। ঘরের তাপমাত্রায় রাখা দই প্রয়োগ করলে শিশুর ত্বকের যাবতীয় র‍্যাশের সমস্যা মিটবে। এক্ষেত্রে অ্যালোভেরাও কিন্তু খুব ভালো কাজ দেয়। অ্যালোভেরার পাতা থেকে জেল বের করে র‍্যাশের জায়গায় লাগিয়ে দিন। নারকেল তেলের মধ্যেও কিন্তু অ্যান্টিফাঙ্গাল এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুনাগুন থাকে। তাই শিশুর ত্বক নরম, মোলায়েম, মসৃণ রাখার জন্য নারকেল তেল প্রয়োগ করতেই পারেন।