ঠিক যে কারণে ছেলে ও মেয়েরা বিয়ের পর মোটা হয়, বিস্তারিত

200

প্রচলিত ধ্যান-ধারণা অনুসারে দৈনন্দিন জীবন সঙ্গে সম্পর্কিত বহু ধারনার প্রচলন আছে। যার মধ্যে একটি হলো, বিয়ের পর ছেলে এবং মেয়েরা নাকি মোটা হয়ে যায়। এর পেছনে অনেক যুক্তি-তর্ক রয়েছে। প্রচলিত মত অনুসারে, হরমোনের প্রভাবে, শরীরের যত্ন না নেওয়ার কারণে, বেশি খেয়ে ফেলার জন্য কিংবা ব্যায়াম বা শরীরচর্চা না করার দরুন বিবাহিতদের ওজন বাড়ে।

মোট কথা, কোনো না কোনোভাবে শরীরে মেদ বৃদ্ধির ফলেই অনিচ্ছাকৃতভাবে মোটা হয়ে যায় অনেকে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, গর্ভাবস্থায় এমনিতেই মহিলাদের ওজন প্রায় ১০-১২ কেজি বৃদ্ধি পায়। এতে কিছু অস্বাভাবিকতা নেই। তবে বিয়ের পর বিভিন্ন অতিথির বাড়িতে গিয়ে অথবা তাদের নিজেদের বাড়িতে নেমন্তন্ন করে ভালো-মন্দ খাওয়াতে এবং খেতে গিয়েও ওজন বৃদ্ধি করে বসেন মহিলারা।

তবে শুধু অতিথিদের জন্যেই নয়। নব বিবাহিতা বধু শ্বশুরবাড়ির লোকেদেরও নিত্যনতুন রান্না করে খাওয়াতে পছন্দ করেন। অতিরিক্ত তেল মসলাদার খাবার খাবার ফলে অবশ্যম্ভাবী ভাবেই বেড়ে যায় শরীরের ওজন। আবার অনেকেই আছেন যারা রান্না-বান্নার কাজে অতটা পটীয়সী নন। তারা নিজে রান্না করে খাওয়ার তুলনায় হোটেলের খাবারের প্রতি বেশি নির্ভর করে থাকেন। আর হোটেলের অতিরিক্ত তেল মসলাদার খাবার খাওয়ার ফলে স্বাভাবিকভাবেই ওজন বৃদ্ধি হয়।

আরো আছে, বিয়ের আগে যারা কঠোরভাবে ডায়েট মেনে চলতেন, বিয়ে হয়ে যাওয়ার পর তাদের আর চেহারা ধরে রাখার প্রতি আগ্রহ থাকে না। ফলাফল স্বরূপ, মোটা হয়ে যাওয়া বাধ্যতামূলক। তবে, জন্মনিয়ন্ত্রণের মাধ্যম হিসেবে অনেকেই গর্ভনিরোধক পিল অথবা ইনজেকশন ব্যবহার করে থাকেন। এগুলির অতিরিক্ত ব্যবহারও কিন্তু ওজন বৃদ্ধির অন্যতম কারণ।